JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
logo shaistaganj
,
sanvi stor
সংবাদ শিরোনাম :
«» ব্যানার ফেস্টুন অপসারণের কাজ করছে হবিগঞ্জ পৌরসভা «» মাধবপুরে সংঘর্ষে আহত ৬, দোকানে আগুন «» হবিগঞ্জ-৩ আসনের প্রার্থীতা নিয়ে গুজবে কান না দেয়ার আহবান «» শাহজালাল (র.) মাজার জিয়ারত শেষে নির্বাচনী এলাকায় বিএনপির একক প্রার্থী সৈয়দ একরামুজ্জামান সুখন «» শায়েস্তাগঞ্জে শীতের আগমনে ব্যস্ত সময় পার করছেন লেপ তোষকের কারিগররা «» শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলায় নবনিযুক্ত নির্বাহী অফিসার এস, এম ফেরদৌস ইসলাম এর যোগদান «» বাহুবলে ট্রাক চাপায় স্কুল ছাত্রের মৃত্যু «» জন্মদিনের ভালোবাসায় সিক্ত : আমি কৃতজ্ঞ… «» হবিগঞ্জবাসী ফের অর্থমন্ত্রী পাবার স্বপ্নে বিভোর «» হবিগঞ্জে পুলিশের অভিযানে ৩৬ সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

হবিগঞ্জ সেন্ট্রালের সভায় জ্বালানী ছাড়া কাঠের তৈরি মোটর সাইকেল আবিস্কারের গল্প বললেন হুমায়ুন কবির

rotary

স্টাফ রিপোর্টার॥ দারিদ্রের জন্য বেচে থাকাটাই ছিল অনিশ্চিত। সেখানে উচ্চ শিক্ষা গ্রহণের স্বপ্ন মানে ছিল উচ্ছা বিলাস। মাধবপুরের হুমায়ুন কবির সেই দারিদ্র জয় করে শুধু লেখাপড়াতেই সফল হয়নি। বরং জ্বালানী ছাড়া কাঠের তৈরি মোটর সাইকেল আবিস্কার করে তাক লাগিয়েছে সবাইকে। মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়িছে এই সফলকার গল্প।

হুমায়ুন কবিরের এই সফলতার পিছনের গল্প জানতে বুধবার সন্ধ্যায় আমীর চান কমপ্লেক্সের কনফারেন্স রুমে রোটারী ক্লাব অব হবিগঞ্জ সেন্ট্রালের সাপ্তাহিক সভায় আমন্ত্রন জানানো হয়েছিল তাকে। সেখানে তার এই সফলতার পিছনের কাহিনী বর্ণনা করে।

হুমায়ুন কবির জানায়, ছোট বেলায় তার শখ হয়েছিল মোটর সাইকেল চালানোর। কিন্তু নিজের পরিবারের সামর্থ না থাকায় সে বুঝতে পারে তার স্বপ্ন পূরণ হবে না। তখন সে চিন্তা করে নিজে নিজে মোটর সাইকেল বানানো যায় কিনা। নিজের এবং পরিবারের ব্যয় নির্বাহের জন্য সে বিভিন্ন স্থানে কাঠমিস্ত্রির সহকারী হিসাবে কাজ করত। সেখান থেকে কাঠ যোগার করে এবং তার কলেজের শিক্ষক কবির কলেজিয়েট একাডেমীর অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন শাওন এর সহযোগিতা নিয়ে সে কাঠের তৈরি মোটর সাইকেল আবিস্কার করে। প্রথমে নিজ এলাকার মানুষ তাকে পাগল বলত। পরে সে যখন তার আবিস্কারকৃত মোটরসাইকেল এলাকায় চালাতে শুরু করে তখন সেখানে ব্যাপক সাড়া পরে যায়। এখন তার ইচ্ছা পৃষ্টপোষকতা পেলে সে এ ব্যাপারে আরও গবেষনা করবে।

সভায় আরও অতিথি ছিলেন, কবির কলেজিয়েট একাডেমীর অধ্যক্ষ জালাল উদ্দিন শাওন। তিনি বর্ণনা করেন কিভাবে দিন রাত কাজ করে এই সফলতা অর্জন করেছে হুমায়ুন কবির। তাকে যাতে পৃষ্টপোষকতা করা যায় তার জন্য আবেদন জানান তিনি।
ক্লাব প্রেসিডেন্ট শরীফ উল্লাহর সভাপতিত্বে এই সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরে অতিথিদ্বয়কে ক্লাবের পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *