JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
logo shaistaganj
,
sanvi stor
সংবাদ শিরোনাম :
«» নিজামপুরে ধানের শীষের সমর্থনে জনসভা অনুষ্ঠিত «» শায়েস্তাগঞ্জের বিশিষ্ঠ মুরুব্বী জিতু মিয়া আর নেই, জানাযায় মুসল্লির ঢল «» চুনারুঘাটে ইউনিসেফের যৌথ পরিদর্শনে বিদ্যুৎ সংযোগ পেয়েছে সুন্দরপুর কমিউনিটি ক্লিনিক «» নিখোঁজের দেড় মাস পর নবীগঞ্জে গৃহবধূর কংকাল উদ্ধার, আটক ১ «» অলিপুরে ট্রাক-মোটর সাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ «» বাহুবলে নানা আয়োজনে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস পালন «» শহীদ বুদ্ধিজীবীদের স্মরণে হবিগঞ্জে আলোক প্রজ্বলন «» নবীগঞ্জে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু «» নাসিরনগরে মহাজোট প্রার্থী বিএম ফরহাদ হোসেন সংগ্রামের নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত «» নাসিরনগরে শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভা

শায়েস্তাগঞ্জে শীতের আগমনে ব্যস্ত সময় পার করছেন লেপ তোষকের কারিগররা

লেপ তোষক copy

মোঃ আবদুল হক রেনু, শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি ॥ শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার পৌর শহরের বিভিন্ন এলাকায় সর্বত্রই একটু একটু করে শীত আসতে শুরু করেছে। শীতের আগমনে এলাকায় প্রত্যন্ত পল্লী থেকে শুরু করে শহরের বিভিন্ন এলাকায় লেপ-তোষক তৈরীতে ব্যস্ত সময় পার করছেন লেপ-তোষকের কারিগররা। এবার একটু আগে থেকেই শীত নামতে শুরু করেছে।

আগাম শীতে ধুনকর আর লেপ-তোষকের ব্যবসায়ীরা বেজায় খুশি। শায়েস্তাগঞ্জ পৌর শহরের বিভিন্ন হাট বাজার ও দোকানে ব্যবসায়ীরা বিক্রির জন্য লেপ-তোষক মওজুদ করে রেখেছেন। জানা যায়, গত কয়েকদিন ধরে ঠান্ডা বাতাস, ও ঘন কুয়াশা পড়ছে। দিনে সুর্য্যরে আলো থাকলেও সন্ধ্যার পর বৃষ্টির মতো কুয়াশায় চার দিকে ঢেকে যাচ্ছে।
অক্টোবর মাসের শেষ সপ্তাহ থেকে শায়েস্তাগঞ্জে শীত নামতে শুরু করেছে।

আগাম শীতের কারণে বিক্রি বেড়ে যাওয়ায় বেজায় খুশি ধুনকর আর গরম কাপড় ব্যবসায়ীরা। সবাই নিজের পরিবারের সদস্যদের জন্য লেপ-তোষক সংগ্রহ করেছেন। তেপ-তোষক তৈরীর অগ্রিম বায়না ও নিচ্ছেন কারিগররা। বিভিন্ন ধরণের শীত বস্ত্র তৈরীর পাশাপাশি কোট-প্যান্ট তৈরির চাহিদা ও আগের তুলনায় বেড়ে গেছে। গত কয়েকদিন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার বিভিন্ন বাজারে সরজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, শায়েস্তাগঞ্জ দাউদনগর বাজার, পুরান বাজর, সুতাংবাজার ও আলীগঞ্জ বাজারে লেপ-তোষক কারিগরদের ব্যস্ততা বেড়েছে।

এ দিকে খোলা বাজারে লেপ-তোষক তৈরীর তুলার দাম ক্রমাগত বেড়ে চলেছে। শায়েস্তাগঞ্জ পৌর শহর এলাকার হবিগঞ্জ রোডের লেপ-তোষক তৈরির কারিগর মোঃ আব্দুর রশিদ জানান, বাজারে প্রতি কেজি গার্মেন্টস তুলা সাদা ৬০ টাকা থেকে ১২০ টাকা, গার্মেন্টস তুলা কালো ৩০ টাকা থেকে ৬০ টাকা, শিমুল তুলা ৭০০ টাকা থেকে ৭৫০ টাকা, র্কাপাস তুলা ২৬০ টাকা থেকে ২৭০ টাকায় বেচাকেনা হচ্ছে। লেপ তৈরীর লাল শালু কাপড় প্রতি গজ ৩০ থেকে ৫৫ টাকায় বিক্রী হচ্ছে। গত বছরের তুলায় এ বছর তুলার মুল্য অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে।

এ বছর গত বছরের চেয়ে চাহিদাও বেশী রয়েছে। অন্য দিকে পৌর এলাকার গ্রামাঞ্চলের গৃহবধুরা শীতের আগাম প্রস্তুতি হিসেবে পুরাণ কাঁথা, কম্বলগুলো জোড়া তালী দিয়ে মেরামত করছেন। শায়েস্তাগঞ্জে একটি লেপ-বানাতে প্রকারভেদে ১৩০০টাকা থেকে ১৬০০টাকা পর্যন্ত নেয়া হচ্ছে। শায়েস্তাগঞ্জ পৌর শহরের পুরাণ বাজারের এলাকার ব্যবসায়ী মোঃ জবরু মিয়া জানান, গত বার ১০০০ টাকায় যে লেপ বানানো হয়েছিল এবার সেটা ১৩০০ টাকা থেকে ১৬০০ টাকা খরচ পড়ছে। লেপ-তোষক প্রকারভেদে গত বছরের চেয়ে এবার ২০০/৩০০ টাকা বেশি খরচ হচ্ছে একটি লেপ বানাতে। এভাবেই পৌর শহরবাসীরা শীত মোকাবেলায় প্রস্তুতি নিচ্ছেন।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *