JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
logo shaistaganj
,
sanvi stor
সংবাদ শিরোনাম :
«» চুনারুঘাটে শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ালেন পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ উল্ল্যাহ «» বাহুবলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত «» বানিয়াঙ্গে চলছে যত্রতত্র গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি : নিরাপত্তা ঝুঁকিতে সাধারণ মানুষ «» আলোর ফেরিওয়ালার সেজে টমটম গাড়িতে মাইক নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ দিচ্ছেন হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি «» শীতে কাঁপছে শায়েস্তাগঞ্জের ছিন্নমূল মানুষ «» মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেরা ছালেক(হ্যাপী)গণসংযোগ «» বাহুবলে নবনির্বাচিত এমপি অালহাজ্ব শাহনওয়াজ মিলাদ গাজীকে গণ-সংবর্ধনা «» হবিগঞ্জে সাইফ টেকের অনুর্ধ্ব-২০ ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলোয়ার বাছাই «» হবিগঞ্জে ক্রিকেটার ইমরুল কায়েসকে সংবর্ধনা «» রোটারী ক্লাব অব নবীগঞ্জের উদ্যোগে সেনেটারী টয়লেট স্থাপনের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন

লাখাইয়ে গণসংযোগ ও নির্বাচনী সভায় এমপি আবু জাহির

Mp Abu Zahir Pic 1 (3)

স্টাফ রিপোর্টার ॥ হবিগঞ্জ-৩ (সদর-লাখাই-শায়েস্তাগঞ্জ) আসনে আওয়ামী লীগ ও মহাজোট মনোনিত প্রার্থী, বর্তমান সংসদ সদস্য এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এডভোকেট মোঃ আবু জাহির বলেছেন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের রাজনীতিতে বিশ্বাসী বলেই আমি হবিগঞ্জ-লাখাই-শায়েস্তাগঞ্জে ব্যাপক উন্নয়ন করতে পেরেছি। অপরদিকে বিএনপি-জামায়াত দুর্নীতিতে বিশ্বাসী এবং দুর্নীতিতে ৫ বারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হওয়ায় যারা তাদের নেতৃবৃন্দ ছিলেন তারাও দুর্নীতিতে নিমজ্জিত ছিলেন। দেশের সেরা ৫০ দুর্নীতিবাজের তালিকায়ও নাম উঠেছিল হবিগঞ্জে বিএনপি নেতার। ভোট আসলে তারা মিথ্যাচার এবং মায়াকান্না করে ভোট প্রার্থনা করেন। আমরা উন্নয়নের কথা বলি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে দেড় কোটি মানুষের কর্মসংস্থান এবং গ্রামকে শহরে রূপান্তরের ঘোষণা দিয়েছেন। ইতোমধ্যে এই কাজ শুরু হয়েছে।

গ্রামে গ্রামে বিদ্যুৎ, রাস্তাঘাট হয়ে গেছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠছে। প্রতিটি এলাকায় কমিউনিটি ক্লিনিক গড়ে তোলার কাজ এগিয়ে চলছে। যা বন্ধ করে দিয়েছিলেন খালেদা জিয়া। আমরা চাই; এই বন্ধ করা রাজনীতি থেকে জনগণকে রক্ষা করে উন্নতির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য। হবিগঞ্জের সকল এলাকায় উন্নয়ন হয়েছে। বিশেষ করে লাখাইয়ের হাওরে বিদ্যুতের আলো জ্বলেছে। মাতৃমুত্যর হার কমে এসেছে। শিক্ষার হার বেড়ে গেছে। কৃষিতে ঘটেছে বিপ্লব। এর সবকিছুই হয়েছে জননেত্রী শেখ হাসিনার দুরদর্শী নেতৃত্বের ফলে। লাখাইবাসী জাতির পিতাকে ভালবাসেন। তাই জাতির পিতার নৌকা মার্কা লাখাইয়ে পরাজিত হয়নি।

আগামীতেও নৌকা প্রতিক বিজয়ের আলোয় উদ্ভাসিত হবে এই বিশ্বাস আমাদের রয়েছে। আর এই বিশ্বাস সৃষ্টি করেছেন- জনগণ। লাখাইয়ের জনগণ আমাকে নিজেদের সন্তান মনে করে ভালবাসেন। এই ভালবাসার ঋণ আমি কোনওদিন শোধ করতে পারব না। ভালবাসার বন্ধন চিহ্ন করার জন্য কুচক্রী মহল শুরু করেছে ষড়যন্ত্র। কোনও ষড়যন্ত্রই লাখাইবাসীর সাথে আমার ভালবাসার বন্ধন ছিন্ন করতে পারবে না। এটা আমার দৃঢ় বিশ্বাস।

গতকাল দিনব্যাপী লাখাই উপজেলার বামৈ বড় বাজার ও বুল্লা বাজারসহ বিভিন্ন স্থানে নির্বাচনী প্রচারণা সভা ও গণসংযোগকালে তিনি এসব কথা বলেন।

এমপি আবু জাহির আরো বলেন, প্রতিদিন আমার কাছে লাখাই’র জনগণ ছুটে আসেন। আমার ঘরে যখন জনগণ আসেন; তখন আমি আনন্দিত হই। আমি জনগণের সাথে থাকতেই স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করি। সংসদ চলাকালেও সুযোগ পেলেই ছুটে আসি আপনাদের মাঝে। ঢাকাতে থাকলেও আমার এলাকার জনগণ আমার পাশেই থাকেন। আর যারা নির্বাচন আসলে আপনাদের পাশে গিয়ে মিষ্টি কথা বলেন, তারা উদ্দেশ্য ভাল নয়। তাদের ব্যাপারে সতর্ক থাকুন।

এমপি আবু জাহির বলেন, বড় কিছু পাওয়ার সময় কিছুটা কষ্ট করতে হয়। হবিগঞ্জ-লাখাই সড়কে দেড়শ’ কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ চলমান থাকায়, চলাচলে কিছুটা কষ্ট হচ্ছে। তবে যখন সবগুলো ব্রীজ এবং রাস্তার কাজ শেষ হবে তখন পাল্টে যাবে লাখাইয়ের চিত্র। সিলেট বিভাগের বিভিন্ন স্থানের লোকজন এই রাস্তা দিয়েই রাজধানীতে যাবেন। কিশোরগঞ্জের মানুষও এদিকে আসবেন। ঢাকায় থাকা লাখাইবাসী স্বাচ্ছন্দ্যে বাড়িতে আসবেন। এখানকার কৃষকদের ফলানো ফসল সহজেই বিভিন্ন স্থানে বিক্রির জন্য চলে যাবে। এখানকার কৃষক, জেলে, শ্রমিকসহ সকল শ্রেণি-পেশার মানুষের আর্ত সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন ঘটবে। একটি সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনার মাধ্যমেই লাখাইকে এগিয়ে নেয়ার কাজ চলমান রয়েছে। এই চলমান কাজকে সুন্দর পরিণতির দিকে নিয়ে যাওয়ার জন্য আবারো আপনাদের ভোট কামনা করছি। নির্বাচিত হলে লাখাই উপজেলার প্রতিটি ইউনিয়নে অন্তত একটি কলেজ প্রতিষ্ঠাসহ প্রয়োজনীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হবে। নির্মাণ করা হবে স্টেডিয়াম, সংস্কৃতি চর্চার জন্য করা হবে অডিটোরিয়াম। চিকিৎসা সেবার উন্নয়নের হাসপাতালের চিকিৎসক সহ সকল সংকট দূর করব ইনশাল্লাহ। কৃষকদেরকে ভর্তুকি অব্যাহত রাখার পাশাপাশি বিভিন্ন যন্ত্রপাতি আরো বেশি করে প্রদান করা হবে। খাল এবং নদী নালা খননের মাধ্যমে সুজলা-সুফলা শষ্য শ্যামলা লাখাই গড়ে তুলতে চাই।

পৃথক নির্বাচনী সভা ও গণসংযোগে অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন এবং উপস্থিত ছিলেন- লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এডভোকেট মুশফিউল আলম আজাদ, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মুর্শেদ কামাল চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি নুরুজ্জামান মোল্লা, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মতিন মাস্টার, শাহ রেজা উদ্দিন আহমেদ দুলদুল, সাংগঠনিক সম্পাদক এডভোকেট মাহফুজ মিয়া, ফজলে এলাহী ফরহাদ, ঢাকাস্থ লাখাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফারুক আহমেদ, ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হক মামুন, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হাই কামাল, উপজেলা যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক ইকরামুল মজিদ চৌধুরী শাকীল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক কাজল আহমেদ, আওয়ামী লীগ নেতা মাসুকুর রহমান, ফারুক সরদার, হাবিবুর রহমান আজনু, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ সভাপতি আমিনুল ইসলাম আলম, হাফিজুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খাইরুদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক শরিফুল আলম রনিসহ আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীসহ স্থানীয় মুরুব্বীয়ান ও যুবক সমাজ।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *