JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
logo shaistaganj
,
sanvi stor
সংবাদ শিরোনাম :
«» সাকিব-রাসেল ঝড়ে উড়ে গেল সিলেট «» নবীগঞ্জে ২৪ লাখ টাকার বিড়িজব্দ করেছে র‌্যাব «» চুনারুঘাটে শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ালেন পুলিশ সুপার মোহাম্মাদ উল্ল্যাহ «» বাহুবলে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মেলার প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত «» বানিয়াঙ্গে চলছে যত্রতত্র গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি : নিরাপত্তা ঝুঁকিতে সাধারণ মানুষ «» আলোর ফেরিওয়ালার সেজে টমটম গাড়িতে মাইক নিয়ে বাড়ি বাড়ি গিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ দিচ্ছেন হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি «» শীতে কাঁপছে শায়েস্তাগঞ্জের ছিন্নমূল মানুষ «» মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী সাবেরা ছালেক(হ্যাপী)গণসংযোগ «» বাহুবলে নবনির্বাচিত এমপি অালহাজ্ব শাহনওয়াজ মিলাদ গাজীকে গণ-সংবর্ধনা «» হবিগঞ্জে সাইফ টেকের অনুর্ধ্ব-২০ ফুটবল টুর্নামেন্টের খেলোয়ার বাছাই

হবিগঞ্জে এতিমখানাসহ ১০ দোকানে চুরি

71038

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জ সদর উপজেলার পইল রোডে একরাতে এতিমখানার দানবাক্সসহ ১০টি দোকানে চুরির ঘটনা ঘটেছে।

সোমবার (৬ ডিসেম্বর) রাতের কোন এক সময় এ ঘটনাগুলো ঘটে। এতে ওই ব্যবসায়ীদের অন্তত দুই থেকে তিন লাখ টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে।

এলাকার জুয়াড়িরা এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে স্থানীয়রা অভিযোগ করে বলেন, ওই এলাকাতে প্রতিদিনই জুয়াড়িদের আস্তানা বসে। তাদের উৎপাতে ওই এলাকার মানুষ অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে। কিন্তু বিভিন্ন প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় থাকায় জুয়াড়িদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খোলতে সাহস পায় না। সম্প্রতি জুয়াড়িদের কারণে ওই এলাকায় চুরি-ডাকাতি বৃদ্ধি পায়। ফলে স্থানীয়দের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ওই এলাকায় পুলিশি টহল জোরদার করা হয়। কিন্তু সোমবার রাতে পুলিশী টহল থাকার পরও মাদ্রাসার দানবাক্সসহ ১০টি দোকানে চুরির ঘটনা ঘটে।

আ’লা হযরত ইমাম আহমেদ রেযা (রাঃ) সুন্নি হাফিজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার প্রধান শিক্ষক মাওলানা নাসির উদ্দিন জানান- সোমবার রাত ১০টার দিকে মাদ্রাসার সবকিছু ঠিক আছে দেখে আমি বাসায় চলে যাই। সকালে ঘুম থেকে উঠে মাদ্রাসার ছাত্ররা দান বাক্সটি ভাঙা দেখতে পায়। পরে পুলিশকে খবর দেয়া হয়।

ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতিদিনের ন্যায় রাতে দোকান বন্ধ করে বাসায় চলে যাই। ভোরবেলা পইল থেকে একজন গুরুত্বর অসুস্থ রুগী নিয়ে একটি টমটম (অটোরিকশা) হাসপাতালে যাচ্ছিল। এ সময় দোকানের দরজা ভাঙা দেখে টমটম (অটোরিকশা) চালক চিৎকার করলে গ্রাম থেকে ব্যবসায়ীরা এসে জড়ো হন। পরে দেখতে পান ওই এলাকার আক্তার হোসেন এন্টারপ্রাইজের গ্যাস সিলিন্ডারের দোকান, সেলিম এন্টারপ্রাইজ, মা স্টোর, কাজল এন্টারপ্রাইজ, জয়নাল আবেদীন চাঁন মিয়া এন্টারপ্রাইজ, ফয়সল ইসলাম এন্টারপ্রাইজ, নাগ ফার্মেসী, আলাউদ্দিন স্টোর ও আক্কাস এন্টারপ্রাইজের দোকানের দরজা ভাঙা।

চোরেরা ওই দোকান থেকে নগদ টাকা, মোবাইলসহ বিভিন্ন মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। লুটকৃত মালামালের আনুমানিক মূল্য দুই থেকে তিন লাখ বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্ল্যা জানান, স্থানীয়রা আমাকে চুরির বিষয়টি অবগত করলে আমি ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছি। এখন পুলিশ তদন্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *