বৃহস্পতিবার, ২৮ অক্টোবর ২০২১, ১২:০৪ অপরাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

নবীগঞ্জে মরদেহ উদ্ধারের ১৮ দিন অতিবাহিত হলেও প্রকৃত রহস্য উদঘাটন এখনও হয়নি

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি : নবীগঞ্জে নিখোঁজের ৩ দিন পর উদ্ধারকৃত নিহত মিশুক চালক আবিদুর ইসলামের (১৮) হত্যাকান্ডের ঘটনার প্রায় ১৮ দিন অতিবাহিত হলেও প্রকৃত রহস্য উদঘাটিত হয়নি। উদ্ধার হয়নি নিহত আবিদুরের সাথে থাকা মিশুক গাড়ীটি। যদিও পুলিশ সন্দেহজনক ২ জনকে আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করেছে এবং বিজ্ঞ আদালত পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে তাদের ৩ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।

নিহতের পরিবারের দাবী পুর্ব আক্রোশে নির্মাম এ হত্যাকান্ড ঘটিয়ে মিশুক গাড়ীটি নিয়ে পালিয়ে যায় অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তরা।

এদিকে একটি সূত্রে জানা গেছে, ঘটনার মাস দেড়েক আগে তিমিপুর গ্রামের দুই ছেলের সাথে নিহত আবিদুর ইসলামের বিরোধ হয়। বিষয়টি স্থানীয় মুরুব্বীয়ান নবীগঞ্জ বাজারে শালিসে নিঃস্পত্তি করেন। ওই সময় তিমিরপুর গ্রামের ওই দুই ছেলে আবিদুর ইসলামকে হত্যার হুমকী দিয়েছিলো।

এদিকে ঘটনার পর থেকেই পুলিশ রহস্য উদঘাটনের বিষয়ে অনেকটা এগিয়েছে বললেও ১৮ দিন অতিবাহিত হলেও আশানুরুপ কোন তথ্য উদঘাটন করতে পারেনি। এতে হতাশা ও ক্ষোভে ফুসে উঠছেন এলাকাবাসী। যে কোন সময় আন্দোলনে নামতে পারে বলে একটি সূত্রে জানাগেছে।

উল্লেখ্য, গত ৩১ আগস্ট মঙ্গলবার রাত ৮ টার দিকে নবীগঞ্জ শহর থেকে আবিদুর ইসলাম (১৮) মিশুক গাড়ি নিয়ে নবীগঞ্জ-বানিয়াচং সড়কে ফায়ার সার্ভিস স্ট্যাশনে জনৈক ব্যক্তিকে নিয়ে যায়। যাত্রী নামিয়ে সেখান থেকে কোন দিকে যায় তা নিশ্চিত করে কেউ বলতে পারছেন না। এরপর থেকে তার কোন সন্ধ্যান পায়নি তার পরিবারের লোকজন। ঘটনার প্রেক্ষিতে থানা পুলিশ ব্যাপক তৎপরতা চালায়। অবশেষে ৩ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে পথচারীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে পুলিশ উপজেলার সরিষপুর নামক স্থানের মরা কুশিয়ারা নদীর কচুরী পেনার নীচে লুকিয়ে রাখা বিবস্ত্র ক্ষতবিক্ষত একটি মরদেহ উদ্ধার করে। পরে লাশের পাশে থাকা কাপড় দেখে মৃতদেহ আবিদুর ইসলামের মর্মে সনাক্ত করেন আবিদুরের পরিবার। পুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। পরে মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়। শনিবার ময়না তদন্ত শেষে আবিদুর ইসলামের মৃতদেহ বাড়ি নিয়ে আসলে গ্রামবাসীসহ স্বজনদের মাঝে পড়ে কান্নার রুল।

এদিকে মিশুক চালক আবিদুর ইসলামের নির্মম নৃঃশংস হত্যাকান্ডের ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। টমটম ও মিশুক শ্রমিকদের মাঝে বিরাজ করছে আতংক ও উৎকন্ঠা। এছাড়া অপ্রাপ্ত বয়স্কদের হাতে টমটম, মিশুক ও রিক্সা না দেয়ার আহব্বান জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি এমন ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে আর সংঘটিত না হয় সে ব্যাপারে প্রশাসনকে সজাগ থাকার আহব্বান সচেতন নাগরিক সমাজের।

উল্লেখ্য, বিগত ২৪ অক্টোবর ২০২০ইং তারিখে গুজাখাইর গ্রামের মিশুক চালক সাজুর মৃতদেহ নিখোঁজের ৩ দিন পর উদ্ধার করা হয়েছিল পুর্ব তিমিরপুর এলাকা থেকে। দুর্বৃত্তরা সাজুকে খুন করে পুর্ব তিমিরপুর এলাকায় একটি ধান ক্ষেতের মাঝে লাশ গুম করে তার মিশুক গাড়ী ছিনিয়ে নেয়। ওই ঘটনারও মুল রহস্য অনুদঘাটিত থাকায় দীর্ঘ প্রায় ১১ মাস পর নবীগঞ্জ পৌর এলাকার কেলী কানাইপুর গ্রামের মুহিবুর রহমান ওরপে পাতা মিয়ার ছেলে আবিদুর ইসলামকে হত্যা করে তার লাশ মরা কুশিয়ারা নদীতে গুম করে মিশুক গাড়ী ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনাটি সংঘটিত হয়।

নিহত মিশুক চালক আবিদুর ইসলামের নির্মম হত্যাকান্ডের প্রকৃত রহস্য উদঘাটনসহ দায়ীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে আইনের আওতায় নিয়ে আসার জন্য উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষসহ সরকারের প্রতি দাবী জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!