রবিবার, ০৪ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:৪০ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

শায়েস্তাগঞ্জ জংশনে রহিমার ভাপা পিঠা জনপ্রিয়

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ৮ জানুয়ারী, ২০১৫

900-1419237390মোঃ মামুন চৌধুরী, : শায়েস্তাগঞ্জ রেলওয়ে জংশনে ভাপা পিঠা বিক্রেতা হিসাবে রহিমা খাতুন পরিচিত মুখ। রহিমার ভাপা পিঠা এখানে খুবই জনপ্রিয়। জংশনের গুদামমাঠের বটগাছের পাশে রহিমা খাতুনের ভাপা পিঠার দোকান। এই শীতের সকালে তার ভাপা পিঠার দোকানে জমজমাট বেচাকেনাও চোখে পড়ার মতো।

রহিমা খাতুনের দোকানে পিঠা খেতে আসা হুমায়ূন মিয়া বললেন, ‘প্রতিদিন একটা পিঠা না খেলে আমার হয় না। এ পিঠা খেয়ে শীতের আমেজ উপভোগ করি। অনুভব করতে পারি গ্রামের বাড়িতে বসেই যেন পিঠা খাচ্ছি।’ তিনি বলেন, ‘রহিমা পরিস্কার পরিছন্নভাবে ভাপা পিঠা তৈরি করেন।’

হুমায়ূনের মতো বুলবুল, রুবেল, সায়েম, রোপন, কাজল, সুজন, বশির, আপিয়ারা এসেছেন রহিমার ভাপা পিঠা খেতে। প্রতিদিন এখানে এসে পিঠা খেয়ে যান বলে জানালেন তারা।

আলাপকালে রহিমা বলেন, ‘আমার পিঠায় কোনো ধরনের ভেজাল নেই।’ আতপ চালের গুড়ি, গুড়, নারকেলই এ পিঠা তৈরির উপাদান বলে জানান তিনি। ভাপা পিঠা এর সঙ্গে  চিতই পিঠা ও সিদ্ধ ডিমও বিক্রি করেন রহিমা খাতুন। প্রতিদিন দিন কম হলেও দুইশ ভাপা পিঠা বিক্রি করেন। এ পিঠা বিক্রি করে তার সংসার ভালই চলছে।

জংশনের রেলওয়ে কলোনি এলাকায় এক মেয়ে নিয়ে রহিমা খাতুনের বসবাস। মেয়েটি কলেজে দ্বাদশ শ্রেণিতে পড়ে। রহিমা বলেন, ‘সৎপথে রোজগার করে জীবিকা নির্বাহ করছি। এটাই আমার গর্ব।’

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!