মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর ২০২০, ০৬:২৪ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

ইন্টারনেট ভিত্তিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অনিরাপদ ও ঝুঁকিপূর্ণ

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: রবিবার, ৭ অক্টোবর, ২০১৮

এম এইছ চৌধুরী জুনাইদ, শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) সংবাদদাতা : ইন্টারনেট ভিত্তিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক, ইমু, ই-মেইল, সেবাগুলো এতই অরক্ষিত ও অনিরাপদ যে, যে কোন মূহুর্তে যেকোন একাউন্ট হ্যাকারের নিয়ন্ত্রণে চলে যেতে পারে। ওই হ্যাকারের দল যদি হ্যাককৃত একাউন্ট থেকে অনৈতিক, অশালীন, বেআইনী ও দেশ বিরোধী কোন অপকর্ম করে, তাহলে এর সম্পূর্ণ দায় বর্তাবে সংশ্লিষ্ট একাউন্ট ব্যবহারকারীর উপর।

তথ্য উপাত্ত বিশ্লেষণে জানাযায়, মোবাইল ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহার প্রযুক্তির প্রবর্তন মানুষের জন্য এ শতাব্দীর সেরা উপহার। মুঠো ফোনে ইন্টারনেট ব্যবহারের আবশ্যিকতা, যোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তির ক্ষেত্রে আমাদেরকে আরেক ধাপ এগিয়ে দিয়েছে। বিশ্ববাসী এখন অবস্থান করছে তথ্যপ্রযুক্তি বিপ্লবের স্বর্ণযুগে। এ্যাপ্লিকেশন ভিত্তিক নাগরিক সেবা ও সামাজিক যোগাযোগ রক্ষার ধারণা আবিষ্কৃত হয়ে সমস্থ পৃথিবীকেই এক ক্লিকে সীমাবদ্ধ করে ফেলেছে। ই-মেইলের ব্যবহার মানুষকে খুব সহজে তথ্য ও নথিপত্র আদান প্রদানে সময় ও অর্থ সাশ্রয়ের সুযোগ করে দিয়েছে।

পাশাপাশি মানুষ সামাজিকজীব হিসেবে সামাজিক যোগাযোগ রক্ষার জন্য বিভিন্ন এ্যাপ ভিত্তিক যোগাযোগ সুবিধার প্রতি অতিমাত্রায় আসক্ত হয়ে পড়েছে। বর্তমানে ফেইসবুক, ইমু, টুইটার, ই-মেইল, হুয়াটসএপ ও ভাইবার ইত্যাদি ব্যবহারের মাধ্যমে দেশে বিদেশে সবার সাথে নিমিষে যোগাযোগ করতে পারছে অল্প সময়ে সাশ্রয়ী মূল্যে। ইন্টারনেটের এই এপভিত্তিক সেবা পৃথিবীব্যাপী মানুষকে নিয়ে এসেছে পরস্পরের খুবই নিকটে। এই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সুবিধা মানুষকে যেমন লাভবান করেছে ঠিক তেমনি ক্ষতির পরিমাণও কম নয়। বিশেষ করে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের মোবাইল ইন্টারনেট আসক্তি অনেকাংশে তাদের অধ্যয়নে মনোনিবেশে অন্তরায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। পৃথিবীব্যাপী কোটি কোটি মানুষ, ফেইসবুক, ইমু, টুইটার, ই-মেইল এই এ্যাপভিত্তিক সেবা নিচ্ছে নিশ্চিন্তে, কিন্তু কস্মিনকালেও কেউ জানেনা সে কতটুকু নিরাপদ। এ্যাপ ভিত্তিক সেবা গ্রহনকারীরা উপলব্ধি করতে পারেননা যে, তিনি যেকোন মূহুর্তে হ্যাকারের হাতে তার সব কিছুই হারাতে পারেন।

হ্যাকার নামক একদল পশু ইন্টারনেট জগতে ঘুরে বেড়ায় অদৃশ্যে, ওৎপেতে থাকে কখন কার একাউন্ট হ্যাক করা যায়। ইন্টারনেট ভিত্তিক এই এ্যাপ সেবাগুলো এতই অরক্ষিত ও অনিরাপদ যে, যেকোন মূহুর্তে যেকোন একাউন্ট অন্যের (হ্যাকার) নিয়ন্ত্রণে চলে যেতে পারে। ওই হ্যাকারের দল যদি হ্যাককৃত একাউন্ট থেকে অনৈতিক, অশালীন, বেআইনী ও দেশ বিরোধী কোন আপকর্ম করে, তাহলে এর সম্পূর্ণ দায় বর্তাবে সংশ্লিষ্ট একাউন্ট ব্যবহারকারীর উপর। একান্ত ব্যক্তিগত কোন কিছু অন্যের নিয়ন্ত্রণে চলে যাওয়ার অর্থই হচ্ছে নিজের গোপনীয়তা সকলের নিকট প্রকাশ পাওয়া। এই হারানো একাউন্ট ফিরে পাওয়ার জন্য সকল প্রকার প্রচেষ্টা ব্যবহারকারীকেই করতে হয়।

এ ব্যাপারে ফেইসবুক, ইমু, টুইটার, ই-মেইল, হুয়াটসএপ ও ভাইবার কর্তৃপক্ষ বিভিন্ন সহযোগীতার প্রতিশ্রুতি দিলেও বাস্তবে তারা কোন সাহায্য সহযোগীতাই করেন না।

সম্প্রতি ফেইসবুক ও সংযুক্ত জিমেইল একাউন্ট হ্যাকিং এর শিকার শায়েস্তাগঞ্জের বাসিন্দা ‘জুনাইদ চৌধুরী’ বলেন, তিনি গত ২০০৮ সলের আগষ্ট মাস হতে একটি ফেইসবুক একাউন্টের মাধ্যমে দেশে বিদেশে উনার আত্মীয়স্বজন, বন্ধু বান্ধবের সহিত নিরবিচ্ছিন্ন যোগাযোগ রক্ষা করে আসছেন। গত মে মাসে হঠাৎ করে উনার ওই ফেইসবুক ও সংযুক্ত জিমেইল একাউন্টটির নিয়ন্ত্রণ হ্যাকারের হাতে চলে যায়। উক্ত হ্যাকার ফেইসবুক একাউন্ট হ্যাক করে ফেইসবুক ম্যাসেঞ্জার ব্যবহার করে উনার নামে আত্মীয়, বন্ধুবান্ধব সকলের নিকট বিকাশের মাধ্যমে টাকা ধার চায়। উনার একজন ঘনিষ্ঠ বন্ধু মোবাইল ফোনের মাধ্যমে বিষয়টি উনার নিকট জানতে চাইলে তিনি বুঝতে পারেন ফেইসবুক একাউন্ট এখন আর তার নিয়ন্ত্রণে নাই। এরপর ফেইসবুক ও জিমেইল, হেল্পডেস্ক এর মাধ্যমে নিয়ন্ত্রণ হারানো একাউন্টগুলো পুনরুদ্ধারের অনেক চেষ্টা করেন। ওই হেল্পডেস্ক তাদের নিয়মানুযায়ী বিভিন্ন প্রক্রিয়া প্রয়োগ শেষে দুঃখিত বলে সান্তনাবানী শুনিয়ে দিয়ে তাদের দায়িত্ব শেষ করে।

এমতাবস্তায়, তিনি তার ব্যক্তি-নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার লক্ষ্যে এই মর্মে স্থানীয় থানায় একটি সাধারণ ডাইরী করেন। শায়েস্তাগঞ্জ থানার ডাইরী নং ২৪৬ তারিখ ০৭/০৬/২০১৮। আমাদের দেশে তথ্য প্রযুক্তি নিরাপত্তা আইন প্রবর্তন ও প্রয়োগ ব্যবস্থা চালু হলেও হ্যাকাররা বরাবরই এর বাইরে থেকে যাচ্ছে ফলে সাধারণ ব্যবহারকারীরা বিপদের ঝুঁকি থাকা সত্বেও ইন্টারনেট ব্যবহার করছে। এমতবস্থায়, সচেতন মহল মনে করেন, সাইবার অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক সাজা প্রদানের বিষয়টি অতীব জরুরী হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি, ইন্টারনেট ব্যবহারকারী সাধারণ মানুষের নিরাপত্তা নিশ্চিতের লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ঠ আইন প্রনয়ন ও প্রয়োগকারী কর্তৃপক্ষের পদক্ষেপ গ্রহন জরুরী।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!