শুক্রবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ০১:৪৭ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

হরষপুর রেলওয়ে স্টেশনে নানাবিধ সমস্যা, যাত্রীদের চরম দূর্ভোগ

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: রবিবার, ১২ এপ্রিল, ২০১৫

8978হামিদুর রহমান, মাধবপুর প্রতিনিধি : ঢাকা-সিলেট রেলওয়ের আখাউড়া সেকশনের হরষপুর রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রীদের দুর্ভোগ চরমে। লোকবল সংকটে এখানে যাত্রী সেবার মান ভেঙ্গে পড়েছে। ২০ জনের মধ্যে লোকবল রয়েছে মাত্র ৫ জন। বিশ্রামাগারে নেই পানি সরবরাহ, অপ্রতুল টিকেট, ভিক্ষুক, হকারের অবাধ বিচরণ, যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা, মাদক সেবীদের দৌরাত্ম, বখাটে ও ছিঁচকে চোরদের আনাগোনায় যাত্রীরা এখানে এসে পড়েন অবর্ণনীয় দূর্ভোগে।

 

বিপুল অংকের টাকা ব্যয়ে মাধবপুর উপজেলার হরষপুর রেলওয়ে স্টেশনের আধুনিকায়নের কাজ সম্পন্ন করা হয়। বিশ্রামাগার, টিকেট কাউন্টার, প্লাটফরমসহ যাবতীয় সুযোগ সুবিধা রাখা হয়, কিন্তুু যথাযথ পদক্ষেপের অভাবে এগুলো তিলে তিলে ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। যথাযথ পদক্ষেপের অভাবে এই রেলওয়ে স্টেশনটি নানাবিধ সমস্যায় জজরিত হয়ে যাত্রী সাধারণের দুর্ভোগের নিত্যসঙ্গী হয়ে দাঁড়িয়েছে।

 

স্টেশনটিতে টিকেট কালেক্টর না থাকাতে ট্রেনের যাত্রা বিরতিকালে বিনা টিকেটের যাত্রী, হকার, বখাটেদের ভীড় এতটাই বেশি হয় যে তাড়াহুড়া আর হুলস্থলে প্লাটফরমে চরম বিশৃঙ্খলা দেখা দেয়। তখনই ঘটে নানা দুর্ঘটনা। ঢাকা-সিলেট ও সিলেট-চট্টগ্রামের মধ্যে চলাচলকারী আন্ত:নগর পাহাড়িকা, জয়ন্তিকা, কুশিয়ারা, জালালাবাদ ও আখাউড়া-শায়েস্তাগঞ্জগামী ডেমু ট্রেন হরষপুর রেলওয়ে স্টেশনে যাত্রাবিরতি করে।

 

মাধবপুরের দক্ষিণাঞ্চল ও পার্শ্ববতী ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলার বিজয়নগর উপজেলার লোকজনসহ বিভিন্ন অঞ্চলের লোকজনের যাতায়াত রয়েছে এ হরষপুর রেলওয়ে স্টেশন দিয়ে। এই রেলওয়ে স্টেশনটিতে ২ জন সহকারী স্টেশন মাস্টার থাকার কথা থাকলেও এখানে কেউ কর্মরত নেই। পয়েন্টস্ ম্যান ৩ জন থাকার কথা, কিন্তু রয়েছেন ২ জন। ২ জন পোটার থাকার কথা থাকলেও এখানে কেউ নেই। গুডস ক্লার্কের পদটি দীর্ঘদিন ধরে শূন্য। তিনজন সুইপারের পদ থাকা স্বত্ত্বেও কর্মরত রয়েছেন মাত্র ১ জন।

 

বিশ্রামাগারগুলোতে পানি সরবরাহ না থাকাতে বাথরুমের দুর্গন্ধ ছড়িয়ে পড়ছে চারদিকে। বিশেষ করে স্টেশনের যাত্রী ছাউনির ফ্লোর ভাঙ্গা থাকার ফলে মাঝে মধ্যে ছোটখাট দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। লোকবল সংকটের কারণে প্রতিদিন দুপুর ২টার পর থেকে স্টেশনের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায় বলে জানা যায়।

 

সরেজমিনে হরষপুর রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে দেখা যায়, স্টেশনের টিকেট কাউন্টারটি ভেঙ্গে যাওয়ার ফলে বিস্কুটের কার্টুন দিয়ে জোড়া তালি দিয়ে কোনরকমভাবে টিকেট কাউন্টারের কার্যক্রম চলছে। হরষপুর রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশন মাস্টার পরশ আলী সিকদার দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ কে জানান, লোকবল সংকটের বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে তিনি জানিয়েছেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!