শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৬:০২ অপরাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা হাসপাতালের কার্যক্রম উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্রে,রোগীদের পোহাতে হয় দূর্ভোগ

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: শনিবার, ১৪ মে, ২০২২

মোঃ আবদুল হক রেনু, শায়েস্তাগঞ্জ :

শায়েস্তগঞ্জ উপ-স্বাস্থ্যকেন্দ্রটি শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভার তালুগড়াই নামক স্থানে এক একর জমির উপর অবস্থিত। উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রটি একটি টিনসেটের রুম মেরামত করে সেখানে চলে আসছে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কার্যক্রম। শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা প্রতিষ্ঠার ৪ বছরেও প্রস্তাবিত ৫০ শয্যা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি এখনো চালু হয়নি।

গত ২০২১ইং সনের অক্টোবরে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় থেকে ৩১শয্যার অনুমোদন দেয়া হয়। এজন্য ৮জন ডাক্তার নার্সসহ স্টাফ মিলে ৩৩জন জনবল নিয়োগ দেয়া হয়। কিন্তু জমি অধিগ্রহন না হওয়ায় ও সরকারি বরাদ্দ না থাকায় ভবন নিমার্ণ করা সম্ভব হয়নি। সে কারণে পুরোপুরি ভাবে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কার্যক্রম ও শুরু করা সম্ভব হচ্ছে না।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার শায়েস্তাগঞ্জ ইউনিয়ন, নুরপুর ইউনিয়ন,ব্রাহ্মণডোরা ইউনিয়ন ও শায়েস্তাগঞ্জ পৌরসভাসহ অন্তত দেড়লক্ষাধিক মানুষের চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে এই উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রে। এর পূর্বে ২০১৪ইং সনের ২৯নভেম্বরে হবিগঞ্জের নিউফিল্ড মাঠে আওয়ামীলীগ আয়োজিত জন সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শায়েস্তাগঞ্জ কে উপজেলা ঘোষণা করেন।

২০১৭ইং সনের ২০নভেম্বরে নিকারের (প্রশাসনিক পূর্ণবিন্যাস সংক্রান্ত জাতীয় বাস্তবায়ন কমিটি) সভায় শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলা হিসেবে অনুমোদন দেয়া হয়।

সাড়ে ৩৯বর্গ কিলোমিটার আয়তনের এই উপজেলায় রয়েছে ১টি পৌরসভা ও ৩টি ইউনিয়ন।

এ ছাড়া ও হবিগঞ্জ জেলার সবচেয়ে গুরত্বপূর্ণ ও ব্যস্ততম স্থান হওয়ায়, দেশের বিভিন্ন স্থানের লোক জনের পদচারণা রয়েছে শায়েস্তাগঞ্জে। কেউ অসুস্থ হলে সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত চিকিৎসা সেবা পেয়ে থাকেন এই স্বাস্থ্যকেন্দ্রে। গুরুতর অসুস্ত হলে তাকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। এতে করে দূভোর্গে পড়তে হয় উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে আসা রোগীদের ।

এদিকে কর্মরত চিকিৎসকরা যারা রয়েছেন, তাদের ও ভাল ভাবে বসার জায়গা নেই এখানে। তবুও সাধ্যমত চিকিৎসা সেবা দিয়ে যাচ্ছেন তারা। দীর্ঘ ৪বছর ধরেই উপ-স্বাস্থ্য কেন্দ্রের পাশাপাশি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কার্যক্রম ও চলে আসছে এখানে।

অনুসন্ধানে আরও জানা গেছে, ২০১৭ইং সনের ১২ডিসেম্বর মন্ত্রণালয় থেকে প্রস্তাবিত নার্স ও স্টাফ মিলে ৪৭টি পদের জন্য প্রস্তাব করা হয়।

কিন্তু এত কম জনবল দিয়ে ৫০শয্যা হাসপাতাল পরিচালনা করা সম্ভব না হওয়ায়, পরে হবিগঞ্জ সিভিল সার্জন অফিস থেকে ১১১টি পদ সৃষ্ট করার জন্য লিখিত ভাবে মন্ত্রণালয়ে প্রস্তাব পাঠানো হয়।গত ২০২১ইং সনের ১৪ নভেম্বর স্থায়ীভাবে যোগদান করেছেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কামরুল জমাদ্দার।

তাকে সহযোগিতা করছেন ২জন সহকারি সার্জন, ১জন মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট, ১জন উপ-সহকারি মেডিকেল অফিসার ও ১জন অফিস সহকারি ।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকতার্ ডাঃ কামরুল জমাদ্দার বলেন, ৩১শয্যা হাসপাতালের কার্যক্রম অস্থায়ী ভাবে শুরু করার জন্য পরিকল্পনা রয়েছে। কিন্তু উপযুক্ত ভবন না পাওয়ায় তা বাস্তবায়ন করা সম্ভব হচ্ছে না।

ইতিমধ্যে যারা নিয়োগ পেয়েছেন, ভবন নিমার্ণ না হওয়ায় তাদেরকে কাজে যোগদান করানো সম্ভব হচ্ছে না। তাছাড়া এখানে নেই তাদের থাকা খাওয়ার উপযুক্ত পরিবেশ। এখানে যোগদানের পর থেকেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি যাতে দু্রত ব্যাস্তবায়ন করা যায় সেই লক্ষ্যে তিনি প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রাদি নিয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন দপ্তরে যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন।

তিনি বলেন, এখানে রোগীদের চিকিৎসা সেবা সামাল দিতে না পারায় তিনি হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক ইশরাত জাহানের সাথে যোগাযোগ করেছেন, তিনি তাকে আশ্বস্ত করেছেন যে, বাজেট থাকলে দু” এক মাসের মধ্যে উপ-স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশে খালি জায়গায় একটি সেমি পাকা ঘর নিমার্ণ করে দিবেন সেখানে বর্হিবিভাগ চালু করে রোগীদের সেবা প্রদান করা হবে।সরকারি বরাদ্দ না থাকায় তিনি নিজে ও ৫মাস যাবত বেতন পাচ্ছেন না।উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন বাস্তবায়নের জন্য তিনি নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন।

এব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান গাজিউর রহমান ইমরান রলেন,উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য কাজ চলছে এবং উর্ধতন মহলে যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে।

এব্যাপারে বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশন শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি মোঃ আব্দুর রকিব বলেন,এ সরকার ক্ষমতায় এসে পর্যায়ক্রমে শায়েস্তাগঞ্জকে উপজেলায় উন্নীত করেছে। এটা শায়েস্তাগঞ্জ বাসীর জন্য অনেক বড় প্রাপ্তি। তিনি আশা প্রকাশ করেন,এ সরকার দূ্রত ৫০শয্যা হাসপাতাল প্রতিষ্ঠা করবে।

এ ব্যাপারে শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুর রশিদ তালুকদার ইকবাল বলেন , তিনি হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মহোদয়কে নিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি পরিদর্শন করেছেন তিনি অচিরেই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর পাশে খালি জায়গায় একটি সেমি পাকা ঘর নিমার্ণ করে দিবেন।এজন্য ৮জন ডাক্তার ও নিয়োগ দেয়া হয়েছে। ইতি মধ্যে ঘর নিমার্ণ না হওয়ায় ডাক্তাররা প্রেষণে সংযুক্তিতে হবিগঞ্জ সদর ২৫০ শয্যা হাসপতালে আছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভবন নিমার্ণ ও বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ চলছে। সকল দপ্তরেই যোগাযোগ অব্যাহত রয়েছে। এখনো জমি অধিগ্রহন হয়নি। জমি অধিগ্রহনের চেষ্টা চলছে। সরকারি বরাদ্দ সাপেক্ষে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভবন নিমার্ণ করা হবে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!