রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১২:১১ অপরাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

আজমিরীগঞ্জে এক বিদ্যালয়ের নতুন ভবনের নির্মাণকাজে নিম্নমানের উপকরণ,মেঝেতে ফাটল

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট, ২০২২

স্টাফ রিপোর্টার :

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলার বদরপুর ইউনিয়নের বদলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কোটি টাকা ব্যায়ে নির্মানাধীন স্কুলের ৩য় তলা বিশিষ্ট নতুন ভবনের নির্মাণকাজ ৩ বছরেও এখন পর্যন্ত সম্পন্ন করা হয়নি।

এছাড়া নিম্নমানের উপকরণ দিয়ে চলছে ভবনের নির্মাণকাজ।
গ্রাউন্ড ফ্লোর সহ ২য় ও ৩য় তলার মেঝেতে দেখা দিয়েছে ফাটল। নিম্নমানের লোহাড়পাত ও সীট দিয়ে তৈরি জানালা স্থাপন করা হয়েছে। যার কারণে জানালা বন্ধ করা যায় না। নিম্নমানের কাঠ জোড়াতালি দিয়ে তৈরি করা হয়েছে দরজা।
ভবনের সামনে ও দুইপাশে স্থাপিত লোহাড়পাত ও পাইপ দিয়ে নির্মিত রেলিং ফিনিশিং করা হয়নি।

এছাড়া আকারে ছোট এবং অদ্যাবধি স্থাপন করা হয়নি গভীর নলকূপ।

৩য় তলা ভবন নির্মাণকালীন সময়ে ফাইলিং করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি বলে এলাকাবাসী জানায়।

জানা যায়,হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজেলার বদলপুর ইউনিয়নের বদলপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি স্থাপিত হয় ১৯৪৫ ইং সনে। পুরাতন স্থাপনাটি বিদ্যালয় পরিচালনায় অনুপযোগী হওয়ায় ও শিক্ষার্থীর সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় বিদ্যালয়ের নূতন ভবন তৈরির তাগিদ আসে।

এরই ধারাবাহিকতায়, বিদ্যালয় ভবন পুনঃনির্মাণের জন্য ২০১৯-২০ অর্থবছরে ৯৩ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।বিদ্যালয় ভবন নির্মাণে বাস্তবায়নেরও দ্বায়িত্বে ছিল প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।তদারকির দ্বায়িত্বে ছিল স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর।

কাজের দ্বায়িত্ব পায় হবিগঞ্জের একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্টান। কাজের দ্বায়িত্ব যে পেয়েছে, নিয়মানুযায়ী ওই ঠিকাদারের কাজ করানোর কথা থাকলেও,কাজ করানো হয়েছে স্থানীয় এক সাব ঠিকাদারের মাধ্যমে।

৩য় তলা বিশিষ্ট নূতন ভবনের নির্মাণকাজের শুরুতে ফাইলিং করার কথা থাকলেও,ফাইলিং না করেই বেইজ ঢালাইয়ের মাধ্যমে কাজ শুরু করা হয়। গ্রাউন্ড ফ্লোর অন্ততপক্ষে দেড় থেকে দুই ফুট উঁচু করার কথা থাকলেও তা করা হয়নি। কাজের শুরুতেই নিম্নমানের উপকরণ সিমেন্টের ভাগ কম ও বালুর পরিমাণ বেশী দেয়া হয়।

যার কারণে কাজের মধ্যেই বা নির্মাণকৃত নূতন ভবন সমঝানোর পূর্বেই গ্রাউন্ড ফ্লোর সহ ২য় ও ৩য় তলার মেঝেতে ফাটল দেখা দিয়েছে।ভবনের সামনের ও দু’পাশে স্থাপিত নিম্নমানের ও হালকা লোহাররড ও পাইপ দিয়ে নির্মিত রেলিং আয়তনে ছোট হওয়ায় দেয়ালের সহিত ভালভাবে ফিটিং হয়নি।নিম্নমানের লোহাররড ও সীট দিয়ে নির্মিত জানালা ভালভাবে বন্ধ করা যায় না।নিম্নমানের কাঠ জোড়াতালি দিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে দরজা।

এ গুলোতে অদ্যাবধি রংয়ের প্রলেপ দেয়া হয়নি।বিদ্যালয় চত্বরে অদ্যাবধি স্থাপন করা হয়নি গভীর নলকূপ।
এতে করে নব-নির্মিত ৩য় তলা বিশিষ্ট বিদ্যালয় ভবনের স্থায়িত্ব নিয়ে জনমনে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এছাড়া ভবনের মেঝেতে ফাটল দেখা দেয়ায় অভিবাবক শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের মাঝে আতংক দেখা দিয়েছে।এদিকে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের নিকট থেকে নব-নির্মিত বিদ্যালয় ভবনের ছাড়পত্র বা প্রত্যায়নপত্র নিতে বার বার ধর্না দিতে শুরু করেছে সংশ্লিষ্ট সাব ঠিকাদার।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও শিক্ষা অফিসারকে মৌখিকভাবে অবহিত করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!