বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৪:৪৩ অপরাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

রেকর্ডের পথে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমীতি II এমপি আবু জাহিরের যুগান্তকারী সফলতা

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: শনিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০১৫

editবিশেষ প্রতিনিধি : খাদ্য, বস্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও চিকিৎসার মত মানুষের মৌলিক চাহিদা হয়ে দাড়িয়েছে বিদ্যুৎ। যত দিন যাচ্ছে এর চাহিদা বেড়েই চলেছে। গ্রাম-গঞ্জ থেকে শুরু করে প্রত্তন্ত হাওর এলাকার মানুষও এখন বিদ্যুৎ-এর জন্য পাগল হয়ে উঠেছে। এরই মধ্যে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমীতি এক যুগান্তকারী সফতলা অর্জন করেছে। বিগত সময়ের চেয়ে চলতি বছর অধিক বেশি স্থানে বিদুৎ পৌছে দিয়েছে বিদ্যুৎ কর্তৃপক্ষ। এমনকি তারা হবিগঞ্জ জেলার বাহিরে সুনামগঞ্জের বিভিন্ন এলাকাতেও তারা বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়েছে। তাদের এই যুগান্তকারী সফলতায় খুশি স্থানীয়রা।

 

হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমীতি সূত্রে জানা যায়, ১৯৮২ সালের ২মে যাত্রা শুরু করে হবিগঞ্জ পল্লী বিদুৎ সমীতি।

 

শুরু থেকে এ পর্যন্ত তারা মোট সংযোগ দিয়েছে ১ লক্ষ ৯১ হাজার ৩শ’ ৭৪টি। এর মধ্যে আবাসীক ১ লক্ষ ৬৫ হাজার ৩টি, বাণিজ্যিক ১৮ হাজার ৪শ’ ৫৬টি, শিল্প ২ হাজার ১শ’ ৩৫টি এবং অনান্য ৩ হাজার ৪শ’ ৮টি। ফসলি জমিতে সেচের জন্য সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ২ হাজার ৩শ’ ৭২টি। এর মধ্যে গভীর নলকুপ ২৪১টি, অগভীর নলকুপ ১ হাজার ৭শ’ ৩৪টি এবং এল এল পি জেলার ৮টি উপজেলার মধ্যে সব চেয়ে বেশি বিদ্যুতায়ীত হয়েছে মাধবপুর উপজেলা। এ উপজেলায় ১৯৮২ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়া হয়েছে মোট ৩৭ হাজার ৪শ’ ৬৬টি। এর মধ্যে আবাসীক ৩২ হাজার ৩১টি, বাণিজ্যিক ৩ হাজার ৪শ’ ৯৩টি, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ৯শ’ ১৭টি, শিল্প ৪ শ’৫৭টি এবং অন্যান্য ৫ নবীগঞ্জ উপজেলায় ১৯৯১ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ৩৬ হাজার ৯শ’ ৪৪টি। এর মধ্যে আবাসীক ৩০ হাজার ৫শ’ ৫৮টি, বাণিজ্যিক ৫ হাজার ১শ’ ১২ট, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ১শ’ ১৭টি, শিল্প ৪শ’ ৩৬টি এবং অন্যান্য ৬ শ’ ৯৩টি।

 

হবিগঞ্জ সদর উপজেলায় ১৯৮২ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ২৭ হাজার ৯শ’টি। এর মধ্যে আবাসীক ২৪ হাজার ৫শ’ ৩৩টি, বাণিজ্যিক ২ হাজার ১শ’ ৪৭টি, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ৩শ’ ৯১টি, শিল্প ৩শ’ ১৯টি এবং অন্যান্য ৫ শ’ ১০টি।

 

চুনারুঘাট উপজেলায় ১৯৮২ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ২৭ হাজার ৭শ’ ৬৪টি। এর মধ্যে আবাসীক ২৩ হাজার ৭শ’ ৪২টি, বাণিজ্যিক ২ হাজার ৭শ’ ৬৪টি, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ৪শ’ ২৮টি, শিল্প ৩শ’টি এবং অন্যান্য ৫ শ’।

 

 

বানিয়াচং উপজেলায় ২০০০ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ১৯ হাজার ৯শ’ ৯৩টি। এর মধ্যে আবাসীক ১৭ হাজার ৫শ’ ৩টি, বাণিজ্যিক ১ হাজার ৭শ’ ৭০টি, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ১শ’ ৯৪টি, শিল্প ২শ’ ২টি এবং অন্যান্য ৩শ’ ২৪টি।

 

বাহুবল উপজেলায় ১৯৮২ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ১৮ হাজার ৪শ’ ৮৩টি। এর মধ্যে আবাসীক ১৬ হাজার ২৭টি, বাণিজ্যিক ১ হাজার ৭শ’ ৩০টি, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ১শ’ ২২টি, শিল্প ২শ’ ৮টি এবং অন্যান্য ৩শ’ ৯৩টি।

 

লাখাই উপজেলায় ১৯৯৯ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ১৩ হাজার ৬শ’ ৪টি। এর মধ্যে আবাসীক ১২ হাজার ৪শ’ ৬৩টি, বাণিজ্যিক ৭শ’ ৮টি, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ৯৮টি, শিল্প ৭৭টি এবং অন্যান্য ২শ’ ৫৮টি।

 

এবং আজমিরীগঞ্জ উপজেলায় ১৯৯৯ সাল থেকে যাত্রা শুরু করে এ পর্যন্ত সংযোগ দেয়া হয়েছে মোট ৮ হাজার ২শ’ ৩১টি। এর মধ্যে আবাসীক ৭ হাজার ১শ’ ৪৭টি, বাণিজ্যিক ৭শ’ ১৯টি, ফসলি জমিতে সেচের জন্য ১শ’ ৫টি, শিল্প ১শ’ ৩৬টি এবং অন্যান্য ১শ’ ২৪টি।

 

এছাড়াও হবিগঞ্জ জেলার পাশ্ববর্তী জেলা সুনামগঞ্জ জেলাতেও হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমীতির আওতায় রাখা হয়েছে। তাই সেখানেও বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হচ্ছে। সুনামগঞ্জ জেলার ৩ টি উপজেলা জগন্নাতপুর, শাল্লা এবং দিরাই মিলেয়ে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমীতি থেকে সংযোগ দেয়া হেয়েছে মোট ৫শ’ ৮৪টি।

 

এর মধ্যে জগন্নাতপুর উপজেলার ৩টি গ্রামে ১শ’ ৯৮টি বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে আবাসীক ১শ’ ৮৮টি, বাণিজ্যিক ৮টি এবং অন্যান্য ২টি।

 

শাল্লা উপজেলার ২টি গ্রামে ২শ’ ৮২টি সংযোগ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে আবাসীক ২৭৮, অন্যান্য ৪টি।

 

দিরাই উপজেলার ৩টি গ্রামে ৫শ’ ৯টি সংযোগ দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে আবাসীক ৫শ’ ৫টি বাণিজ্যিক ২টি এবং অন্যান্য ২টি।

 

হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমীতির এ জি এম মোক্তার হোসেন জানান, “প্রতিবছরই আমরা আমাদের লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে আরো অনেক বেশি স্থানে বিদ্যুৎ সংযোগ দিয়ে থাকি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন ২০১৯ সালের ভেতরে ৯৯% বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া সম্পন্ন হতে হবে। কিন্তু আমরা আশা করছি হবিগঞ্জ জেলায় ২০১৯ সালের আগেই তা সম্পন্ন হয়ে যাবে।”

 

তিনি বলেন, বিদ্যুৎ একটি জাতীয় সম্পদ তাই এর প্রতি অধিকার সবারই আছে। সুনামগঞ্জ জেলার কয়েকটি গ্রামে সেখানকার অফিস থেকে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়া সম্ভব হচ্ছে না বলে ঐ গামগুলোতে হবিগঞ্জ পল্লী বিদ্যুৎ সমীতি থেকে সংযোগ দেয়া হচ্ছে। যা আমাদেও আর একটি সাফলতা।”

 

অবৈধ বিদ্যু সংযোগ সম্পর্কে তিনি বলেন, “অবৈধ কিছু বিদ্যুৎ সংযোগের কারণে আমেদের অনেক সমস্যা হয়ে থাকে। তবে তাদের এই অবৈধ সংযোগ-এর ব্যপারি আমরা খুবই সতর্ক। প্রতিদিনই জেলার কোন না কোন এলকায় আমাদের অভিযান চলে। এবং অবৈধ বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্নসহ তাদের জরিমানা করা হয়।”

 

মোক্তাদির হোসেন বলেন, “চলতি অর্থ বছরে রেকর্ড তৈরী করেছেন হবিগঞ্জ সদর-লাখাই আসনের সংসদ সদস্য এডভোকেট মো. আবু জাহির। তিনি তার নির্বাচনি এলাকা হাবগঞ্জ সদর-লাখাই ইপজেলায় যে পরিমান নতুন সংযোগ দিয়েছেন তা অন্য কোন এলাকায় দেয়া হয়নি।”

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!