রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৪:৩২ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

পঙ্গুত্বের অভিশাপ নিয়ে বেঁচে আছেন শায়েস্তাগঞ্জের আব্দুল্লাহ

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০১৫

6124
কামরুজ্জামান আল রিয়াদ, শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ): আজ ভয়াল ২৭ জানুয়ারী। ২০০৫ সালের এ দিনে হবিগঞ্জের বৈদ্যার বাজারে আওয়ামীলীগের জনসভা শেষে গ্রেনেড হামলায় নিহত হন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া সহ ৫ জন। আর মারাত্মকভাবে আহত হন জেলা আওয়ামীলীগের তৎকালীন সাধারণ সম্পাদক বর্তমান সংসদ সদস্য এডভোকেট আবু জাহির সহ প্রায় অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী। এদেরই একজন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ সরদার। ভয়াবহ এক গ্রেনেড হামলায় বেঁচে যাওয়া আব্দুল্লাহ সরদার টাকার অভাবে চিকিৎসা বন্ধ হয়ে আসছে।

প্রায় ২ শতাধিক গ্রেনেডের স্পি­ন্টার দেহের মধ্যে নিয়ে মানসিক কষ্টে দিন কাটছে তার। এ ঘটনায় নিজে যেমন তিনি পঙ্গু হয়েছে তেমনি পঙ্গু করে রেখেছেন তার পুরো পরিবারকে। তার এই ঘটনায় অকালে তার পিতারও প্রাণ দিতে হয়েছে। প্রতিবছর ২৭ জানুয়ারী এলেই ইলেকট্রনিক্স ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদের ভীড় জমে যায় আব্দুল্লাহ সরদারের শায়েস্তাগঞ্জের বিরামচর গ্রামের বাড়ীতে। যুগান্তর প্রতিনিধিকে তিনি জানান প্রতিবছরই এ সময় সবাই খবর নেয় কিন্তু এর পর বছরব্যাপি সঙ্গী হয় সেই ভয়াল স্মৃতি। চিকিৎসার অভাবে তার বাম হাত ও বাম পা এখনো স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসেনি।

২৭ জানুয়ারীর ভয়াবহ স্মৃতির নিয়ে কথা বললে তিনি এখনও আঁতকে উঠেন। কান্নায় বুক ফেটে যায় তার। ওই দৃশ্য মনে করলে তার শরীর শিহরে উঠে। ২৭ জানুয়ারী ২০০৫ হবিগঞ্জের বৈদ্যার বাজারে গ্রেনেড হামলায় আহত হয়ে বেঁচে যাওয়া আব্দুল্লাহ সরদার গ্রেনেডের স্পি­ন্টার শরীরে বহন করে অসংখ্য যন্ত্রনা নিয়ে এখনও বেঁচে আছেন। ঘাতকের গ্রেনেডের হামলায় আব্দুল্লা একটি পা হারিয়েছেন। গ্রেনেড হামলায় গুরুতর আহত আব্দুল্লাকে বারডেম হাসপাতালে শেখ হাসিনার তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা করানো হয়। ২৫ দিন বারডেমে চিকিৎসা শেষে যে অবস্থায় বাড়ীতে ফিরে আসেন আজও সেই অবস্থাই আছেন।

গ্রেনেড হামলার ৬ বছর অতিবাহিত হলেও এখনও তিনি স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে পারেননি। আজ দু’ কদম হাঁটতে গেলে তার ভরসা ক্র্যাচ। ইতিমধ্যে দলীয় সভানেত্রী বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আর্থিক সাহায্যে ও বর্ষীয়ান নেতা দেওয়ান ফরিদগাজী এমপি’র তনয় মিল্লাতগাজীর সার্বিক সহযোগীতায় তিনবার চিকিৎসকের শরানাপন্ন হলেও অবস্থার কিছুটা উন্নতি হলেও সম্পূর্ণ সুস্থ্য হয়ে উঠেননি। চিকিৎসকরা তাকে বিদেশে উন্নত চিকিৎসা নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু আর্থিক অনটনে তা সম্ভবপর হয়ে উঠছে না। এরই মধ্যে তিনি হারিয়েছেন তার জন্মদাতা পিতাকে। যিনি দুর্ঘটনার রাতে আব্দুল্লাহ সরদারের মিথ্যা মৃত্যুর সংবাদ শুনে স্মৃতি হারিয়ে ফেলেছিলেন। অশ্র“সজল চোখে আব্দুল্লাহ বলেন আমি আমার বাবার লাশ নিজের কাঁধে বহন করে কবরস্থানে নিয়ে যেতে পারিনি। একজন মানুষের জীবনে এর চেয়ে বড় দুঃখের বিষয় আর কি হতে পারে। এক পর্যায়ে তার কোন চাওয়া আছে কিনা প্রশ্ন করলে এর উত্তরে তিনি এ প্রতিনিধিকে জানান, জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমার একটাই চাওয়া মাতৃস্নেহে তিনি যেন আমায় স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে সাহায্য করেন। আমি যেন আমার মায়ের লাশটি অনন্তঃ কাঁধে বহন করে কবরে নিয়ে যেতে পারি।

২৭ জানুয়ারী গ্রেনেড হামলার সময় তিনি সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়ার পাশে দাঁড়ানো ছিলেন। হঠাৎ বিকট শব্দে বি®ফুরিত হয় গ্রেনেড। গ্রেনেডের আঘাতের সাথে সাথে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন আব্দুল্লাহ। সেই থেকে এখন পর্যন্ত পঙ্গুত্বের অভিশাপ নিয়ে বেঁেচ আছেন তিনি। বৃদ্ধ মা, স্ত্রী দুই শিশুকন্যা আর নিজের অনাগত ভবিষ্যতের চিন্তায় চিন্তায় দিন কাটে তার। আব্দুল্লাহ সরদার ২৭ জানুয়ারীর ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!