রবিবার, ১৪ জুলাই ২০২৪, ০৫:১৫ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

শায়েস্তাগঞ্জে বেড়েই চলছে বাল্য বিবাহ

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: রবিবার, ২৯ মার্চ, ২০১৫

1403695287.

শায়েস্তাগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: সম্প্রতি বাংলাদেশের বিভিন্ন সমস্যাবলীর মধ্যে বাল্য বিবাহ একটি জাতীয় ও সামাজিক সমস্যা। বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার প্রায় ২৫ শতাংশই কিশোর কিশোরী। এই সমস্ত কিশোর কিশোরীরা শারিরীক, মানুষিক এবং অর্থনৈতিক ভাবে তৈরী হওয়ার আগেই তাদের উপর চাপিয়ে দেওয়া হয় বিয়ে নামে এক বিরাট দায়িত্বের বোঝা। প্রকৃত ভাবে বাংলাদেশের শতকরা ৬০ ভাগ বিয়ে হয়ে থাকে অল্প বয়সে ।

এদিকে ১৯২৯ সালে বাল্য বিবাহ আইন পাশ হলেও এই আইনে ১৮ বছরের কম বয়সী মেয়েদের ও ২১বছরের কম বয়সী ছেলেদের বিয়ে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এই বয়সে কেউ বিয়ে বন্ধনে আবদ্ধ হলে তাকে শাস্তি পেতে হয়। আইনকে বৃদ্ধাঙ্গুলী দেখিয়ে শায়েস্তাগঞ্জ সহ দেশের প্রত্যন্তাঞ্চলে দিনদিন বেড়েই চলছে বাল্য বিবাহের প্রবনতা ।

প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে বাল্য বিয়ের মত ঘটনা। হাটি হাটি পা পা করে প্রাথমিক শিক্ষাস্তর অতিক্রম করে মাধ্যমিক স্তরে পা রাখার পরেই ঝড়ে পড়ছে অনেক কোমলমতি প্রাণ।

স্থানীয় ইউ/পি চেয়ারম্যান, মেম্বার ,ও মোড়ল নামক প্রভাব শালীদের সমর্থনের কারনেই এই বাল্য বিয়ের মত জঘন্য কাজ গুলি সম্পাদন ও সমধান হচ্ছে।

বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন বাল্য বিয়ে রোধে কাজ করলেও তেমন সুফল মিলছেনা। তবে সরকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বাল্য বিয়ে কমে গিয়েছে বলে দাবি করছে।

সরকারী নিতিমালা অনুযায়ী মেয়ের ১৮ আর ছেলের ২১ বছর হতে হবে, কিন্তু মেয়ের বয়স ১৩/১৪ আর ছেলেদের ১৬/১৭ হলেই বিয়ে নামের বোঝা তোলে দিচ্ছেন অভিভাবকরা। এস এস সি পরিক্ষার আগেই ভর্তিকৃত ৭০ শতাংশ ছাত্রীদের বিয়ে হয়ে যায়। আইনের চোখকে ফাঁকিদিয়ে ইউপি চেয়াম্যান মেম্বার এবং পৌরমেয়র ও কাউন্সিলররা জনপ্রতিনিধি হিসাবে ভোট প্রাপ্তির আশায় ভুয়া সনদ দিয়ে থাকেন।

স্কুলের ভর্তি তারিখ জন্ম সনদ দিয়ে বিয়ে রেজিষ্টারারগন বিবাহ কার্য সম্পন্ন করেন ।

আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কর্মকর্তারা সে কারনে কোন ভুমিকা পালন করতে পারেন না। অন্য দিকে গ্রামের প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতাদের ইন্ধনের কারনেই বাল্য বিবাহ গুলি খুব সহজেই সম্পন্ন করে ও আইনের চোখ কে ফাঁকি দেওয়া সহজ হয়। এই বাল্য বিয়ের কারনে বিভিন্ন শারিরীক জটিলতা সহ যৌতুক, নারী নির্যাতন পারিবারিক কলহের ঘটনা ঘটছে প্রতিনিয়ত।

সম্প্রতি শায়েস্তাগঞ্জের পৌর এলাকার জনৈক ব্যক্তির ১২ বছরের ৫ম শ্রেনির স্কুল পড়ুরা ছাত্রী গত নভেম্বরে প্রচলিত আইনকে পাশ কাটিয়ে গোপনে বিবাহের কাজ সম্পন্ন হয়। স্কুল ভর্তির তথ্যানুযায়ী এই মেয়ের বয়স ১৩ বছর।

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষে মাধ্যমে এই অপ্রাপ্ত মেয়েটির বয়স পরিবর্তন করে ১৮ বছর দেখিয়ে উপস্থিত সকলের মধ্যে মিষ্টান্ন বিতরণ ও ভুড়িভোজের মাধ্যমে বিবাহের কাজ সম্পন্ন করা হয়।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!