বৃহস্পতিবার, ২৫ জুলাই ২০২৪, ০৯:৪২ পূর্বাহ্ন
নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ::
হবিগঞ্জ জেলার অনলাইন নিউজ পোর্টালের মধ্যে অন্যতম ও সংবাদ মাধ্যমে আলোড়ন সৃষ্টিকারী গণমাধ্যম দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডট কম-এ জরুরী ভিত্তিতে হবিগঞ্জ,নবীগঞ্জ,শায়েস্তাগঞ্জ,চুনারুঘাট,মাধবপুর,বাহুবল,বানিয়াচং,আজমিরিগঞ্জ,থানার সকল ইউনিয়ন,কলেজ, স্কুল থেকে প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহী প্রার্থীগণ যোগাযোগ করুন নিম্ন ঠিকানায় ইমেইল করার জন্য বলা হলো। Email : shaistaganjnews@gmail.com Phone: 01716439625 & 01740943082 ধন্যবাদ, সম্পাদক দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ

স্মরণ: কিবরিয়া-জনমনে বসতি যাঁর

দৈনিক শায়েস্তাগঞ্জ ডেস্ক ::
  • আপডেট টাইম :: মঙ্গলবার, ২৭ জানুয়ারী, ২০১৫

১২৩৬৪৫৭
আজ ভয়াল, ভয়ংকর, বিভীষিকাময় ২৭ জানুয়ারী । এ দিনটি বাংলাদেশের রাজনৈতিক ইতহাসে কলংকময় একটি দিন হিসাবে চিহ্নিত হয়ে আছে। ২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারী। দিনটি ছিলো বৃহস্পতিবার । এদিন বিকেলে শায়েস্তাগঞ্জের অদূরে অবস্থিত বৈদ্যের বাজার প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে ছিলো লস্করপুর ইউ/পি আওয়ামীলীগের জনসভা। এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন তৎকালীন সাংসদ, আন্তর্জাতিক খ্যাতি সম্পন্ন ব্যাক্তিত্ব, সাবেক সফল অর্থমন্ত্রী , জাতি সংঘের প্রথম মুসলিম আন্ডার সেক্রেটারী শাহ এ.এম.এস.কিবরিয়া। জনসভা শুরু হয় বিকেলে । হবিগঞ্জের প্রিয় মানুষ , ভালোবাসার মানুষ,শ্রদ্ধার মানুষ মিষ্টভাষী কিবরিয়া সাহেবের বিনীত ভাষণ শুনতে জড়ো হয় হাজারো জনতা। জনসভা শেষ হয় সন্ধ্যা গড়িয়ে। হাসিমুখে আয়োজকদের কাছ থেকে বিদায় নেন প্রধান অতিথি। সাধারণ মানুষ পরিবেষ্টিত হয়ে এগিয়ে যান অদূরে দাঁড়ানো নিজ গাড়ীটির দিকে। কিন্তু কে জানতো গাড়ীর দরজার পরিবর্তে সন্ধ্যার আঁধারে যমদূত ওখানে তার দ্বার খুলে অপেক্ষারত। বিদ্যালয় প্রাঙ্গন পেরিয়ে আর কয়েক কদম এগুতেই কর্নপট বিদীর্ণ করা বিকট শব্দের সাথে আগুনের ফুলকি। কয়েক মুহুর্ত পিন পতন নীরবতা। তারপর আকাশ বাতাস কাঁপানো আর্তচিৎকার আর বুকফাটা কান্নার রোল। এস.এম.কিবরিয়া সহ শতাধিক জনতা তখন মাটিতে লুটিয়ে। কিংকর্তব্যবিমুঢ় সবাই। সম্বিত ফিরে পেতেই বুঝতে বাকী রইলোনা যে, এ হচ্ছে প্রতিক্রিয়াশীল দুষ্টচক্রের মরন আঘাত। মানুষরূপী পশুর ছুঁড়ে দেয়া গ্রেনেডের বিষ্কোরণ। ঘটনাস্থলে প্রধান অতিথির ভাতিজা শাহ মনজুরুল হুদা সহ স্থানীয় দুই কিবরিয়া প্রেমিক আঃ রহিম ও ছিদ্দিক আলী প্রাণ হারালেন। পার্শ্ববর্তী মসজিদের মাইক থেকে তখন ভেসে আসছে এশা’র আযান ।

কিবরিয়া মহোদয়, এড: আবু জাহির, আব্দুল্লাহ্ সরদার, আবুল হুসেন সহ আহতদের দ্রুত হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলো। অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আহতদের ঢাকায় প্রেরণের উপদেশ দেন। কিন্তু জাতির দূর্ভগ্য যে কিবরিয়া মহোদয়ের মতো একজন খ্যাতনামা ব্যক্তির প্রাণ রক্ষায় সরকারের পক্ষ থেকে তখনো কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। অবশেষে একটি প্রাইভেট হাসপাতালের এ্যম্বুল্যান্সে তাঁকে নিয়ে ঢাকায় রওয়ানা দেন স্থানীয় নেতৃবৃন্দ। ভৈরবে পৌছঁলে অন্য গাড়ীতে থাকা আয়ামীলীগ অন্তপ্রাণ আবুল হুসেন শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। অন্যদের ঢাকায় নিয়ে বারডেম হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এর পর কিছু সময়ের মধ্যে সব প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে নিষ্টুর মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন হবিগঞ্জের প্রাণ পুরুষ এস.এ.এম.এস.কিবরিয়া। মৃত্যুর সাথে দীর্ঘ দিন পাঞ্জা লড়ে হৃদয়ে দুঃসহ সেই স্মৃতি আর সারাদেহে ঘটনার আলামত হিসেবে অসংখ্য ¯স্লীন্টার নিয়ে বেঁচে আছেন দুজন। এদের একজন এড:আবু জাহির।

বর্তমান হবিগঞ্জ সদর আসনের সরকার দলীয় সাংসদ। অন্যজন উপজেলা আয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল্লাহ সরদার। যার জীবন চলে এখন ক্র্যাচে ভর দিয়ে। দুর্ঘটনায় তিনি চিরদিনের জন্য পঙ্গুত্বেকে বরণ করতে বাধ্য হয়েছেন।ঘাতকের নির্মম গ্রেনেড এস.এম.কিবরিয়ার দৈহিক মৃত্যু ঘটাতে পারলেও হবিগঞ্জবাসির হৃদয় থেকে তাঁর আসন টলাতে পারেনি। ২৭ জানু: এবং কিবরিয়া সাহেবের মৃত্যু নিয়ে এ প্রতিবেদক সমাজের বিভিন্ন পেশার মানুষের সাথে কথা বলে এ বিষয়ে যে প্রতিক্রিয়া পেয়েছেন তার চুস্বকাংশ এখানে উল্লেখ করা হলো:-এস.এম.এস. কিবরিয়ার মৃত্যু সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে একজন স্কুল শিক্ষক সত্য বাবু বলেন, আমার তো সাধ্য নেই তবে পরম করুনাময়ের কাছে এই ফরিয়াদ জানাই; যিনি মানুষকে এত ভালোবাসতেন তাঁর এমন নিষ্ঠুর মৃত্যুর বিচার তুমি করো ইশ্বর! একজন শ্রমিক নেতা আহামদ আলী তাঁর প্রতিক্রিয়ায় বলেন -ভালোবাসার বন্ধন তো দৃঢ় হয়, কিন্তু রক্তের বন্ধন তো সুদৃঢ়। আমরা কিবরিয়া সাহেবের রক্তের ঋণ শুধবো কী করে ? দিনমজুর আ:মালেকের হবিগঞ্জের আঞ্চলিক ভাষায় সরল উক্তি – ই রকম আর এউগ্লা মানুষ বাংলাদেশেও হইত না।

একজন অন্ধ ভিক্ষুক শুকুর আলীর মতে- ‘ তাইন বাইচ্চা থাকলে মনে অয় আমরার ভিক্ষা করন লাগতো না।’ (তিনি বেঁচে থাকলে হয়তো আমাদের ভিক্ষে করতে হতো না।) বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আঃ আজিজ (বুলু) তাঁর প্রতিক্রিয়া ব্যক্তকরতে গিয়ে বলেন, বর্তমান পঙ্কিল রাজনীতির কারনে অনেক নেতা নেত্রী হয়তো কালের গর্ভে হারিয়ে যাবে না। কিন্তু যতদিন বাংলাদেশ থাকবে,বাঙ্গালী জাতি থাকবে,তত দিন নিঃষ্কলুষ মানুষ হিসাবে কিবরিয়া মহোদয়ের নাম চির ভাস্বর হয়ে থাকবে।

লেখক,
কামরুজ্জামান আল রিয়াদ
যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক
শায়েস্তাগঞ্জ পৌরআওয়ামীলীগ

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2020 shaistaganj.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themesbazarshaista41
error: Content is protected !!