JavaScript must be enabled in order for you to see "WP Copy Data Protect" effect. However, it seems JavaScript is either disabled or not supported by your browser. To see full result of "WP Copy Data Protector", enable JavaScript by changing your browser options, then try again.
logo shaistaganj
,
EID
সংবাদ শিরোনাম :
«» চেয়ারম্যান প্রার্থী আলহাজ্ব গোলাম কিবরিয়া চৌধুরী বেলালের নূরপুর(নোয়াহাটি)গ্রামে গনসংযোগ «» স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল কাইয়ুম ফারুকের গনসংযোগ «» চুনারুঘাটে যথাযথভাবে মহান বিজয় দিবস পালন «» যুবলীগ নেতা বিপ্লব রায়ের পিতার মৃত্যুতে এমপি আবু জাহিরের শোক «» বাংলাদেশ যুব গেমস উপলক্ষে র‌্যালির উদ্বোধন করলেন এমপি আবু জাহির «» নবীগঞ্জে যথাযথ মর্যাদায় বিজয় দিবস পালিত «» চুনারুঘাটের নরপতি গ্রামের আওয়ামীলীগ নেতা ফরিদ মোল্লার দাফন সম্পন্ন «» চুনারুঘাটে জি আর ফাউন্ডেশন ইউ,কে,র উদ্যোগে বিজয় দিবস পালন «» শিশু যেভাবে মায়ের কোলে নিরাপদ তেমনি আ’লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের জনগণ নিরাপদ-এমপি আবু জাহির «» সরকারের উন্নয়ন কর্মকান্ডে ভূমিকা রাখছে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনী-এমপি আবু জাহির

বাহুবলে গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু

23414195_1698238676916970_1609328067_n-400x225

বাহুবল প্রতিনিধি : বাহুবলে রুনা আক্তার (২২) নামের এক গৃহবধূর রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে। মঙ্গলবার (৭ নভেম্বর) সকালে উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রুপশংকর গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। নিহত গৃহবধূ পশ্চিম রুপশংকর গ্রামের মাছ ব্যবসায়ী এমরান মিয়ার স্ত্রী।

নিহতের পরিবার সূত্রে জানা যায়, বাহুবল উপজেলার মিরপুর ইউনিয়নের পশ্চিম রুপশংকর গ্রামের মকসুদ আলীর ছেলে মাছ ব্যবসায়ী এমরান মিয়ার সাথে কয়েক বছর আগে একই গ্রামের আঙ্গুরা খাতুনের মেয়ে রুনা আক্তারের বিয়ে হয়।

বিয়ের বছর পার হওয়ার পর থেকেই স্বামীর পরকীয়ার জের ধরে তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল।

গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় এনিয়ে উভয়ের মধ্যে ঝগড়াঝাটি হয়। এক পর্যায়ে মঙ্গলবার সকাল ৮ টার দিকে স্বামীসহ তার স্বজনরা রুনাকে অসুস্থ বলে হবিগঞ্জ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করলে স্বামীসহ তার স্বজনরা পালিয়ে যায়।

হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক জানান, মৃত অবস্থায় স্বজনরা গৃহবধুকে হাসপাতালে নিয়ে এসে কৌশলে পালিয়েছে।

তিনি আরও জানান, হাসপাতালে নিয়ে আসার ৭-৮ ঘন্টা পূর্বেই গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে। খবর পেয়ে বাহুবল মডেল থানার তদন্ত অফিসার গোলাম দস্তগীর আহমেদ হবিগঞ্জ হাসপাতালে পৌঁছে লাশের ছুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন। তিনি জানান, লাশে আঘাতের কোন চিহ্ন পাওয়া যায়নি। ময়না তদন্তের রিপোর্ট ছাড়া এটা হত্যা না আত্মহত্যা তা বলা যাবে না।

Share Button

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *